স্বাস্থ্য

জেনে নিই সাপের কামড়ের চিকিৎসা সম্পর্কে

স্বাস্থ ডেস্ক : সাপকে ভয় পায় না এমন মানুষ সম্ভবত কমই আছে। সাপ কিন্তু এমনিতেই মানুষকে কামড়ায় না। তাকে বিরক্ত করলে কিংবা সে নিজের জীবনকে ঝুঁকির মধ্যে আছে মনে করলে শত্রুকে কামড় বসিয়ে দেয়। সাপের বিষ মারাত্মক। প্রাণকে নিষ্প্রাণ করে দেয় এ বিষ। তবে সব সাপ বিষধর নয়। বিষধর ও নির্বিষ উভয়ের কামড়ে মেডিকেল কিংবা চিকিৎসকের শরণাপন্ন হতে হবে। উইকি হাউ-এর প্রতিবেদন অনুযায়ী আসুন বিষাক্ত সাপের কামড়ের চিকিৎসা * জরুরি সেবা নম্বরে ফোন করুন অথবা সাহায্যের জন্য কাউকে ডাকুন। আপনি যদি একা হন তাহলে সাহায্য পেতে এগিয়ে চলুন। বেশিরভাগ সাপের কামড় মারাত্মক হয় না। বিষাক্ত সাপে কামড়ালে যত দ্রুত সম্ভব ...

Read More »

ভালো ঘুমাতে ডায়াবেটিস রোগীদের করণীয়

স্বাস্থ্য ডেস্ক: ডায়াবেটিস রোগীদের বেশিরভাগই রাতে ভালোমতো ঘুমাতে পারেন না। আনুমানিক ৪০-৫০ ভাগ ডায়াবেটিস রোগীই নিদ্রাহীনতায় ভোগেন। কম ঘুমানোর ফলে তাদের রক্তে শর্করার পরিমাণ বেড়ে যায়। শুধু তাই নয়, নিদ্রাহীনতা তাদের মেজাজ এবং স্বাস্থ্যের উপরও ক্ষতিকর প্রভাব ফেলে। এমনটিই জানিয়েছেন যুক্তরাষ্ট্রের লুইস স্টোকস কিভল্যান্ড ভিএ মেডিক্যাল সেন্টারের স্লিপ ডিসওর্ডারের পরিচালক ডা. কিংম্যান স্ট্রল। তিনি বলেছেন, ডায়াবেটিস রোগীদের সবার আগে ঘুমকে প্রাধান্য দেওয়া উচিত। কারণ ভালো ঘুমই তাদের রক্তে শর্করার পরিমাণ নিয়ন্ত্রণে রাখতে সাহায্য করে। কাজেই জেনে নিন ডায়াবেটিস রোগীদের ভালো ঘুমানোর কিছু টিপস- অতিরিক্ত ওজন কমান নিদ্রাহীনতার অন্যতম কারণ হতে পারে অতিরিক্ত ওজন। ২০০৯ সালে প্রকাশিত এক গবেষণায় দেখা গেছে, ...

Read More »

পোকা কামড়ালে যা করবেন

স্বাস্থ্য ডেস্ক: অধিকাংশ পোকামাকড়ের কামড় ও হুল বিপজ্জনক নয়। কয়েক ঘণ্টা বা কয়েক দিনের মধ্যে ভালো হয়ে যায়। কিন্তু কখনো কখনো এসব কামড় বা হুল ফোঁটা সংক্রমিত হতে পারে, মারাত্মক অ্যালার্জিজনিত প্রতিক্রিয়া ঘটাতে পারে। অথবা মারাত্মক অসুস্থতা ছড়াতে পারে। যেমন : লাইম ডিজিস, ম্যালেরিয়া, ডেঙ্গু ও চিকুনগুনিয়া। সাধারণত যেসব পোকামাকড় কামড়ায় বা হুল ফোঁটায়, এদের মধ্যে রয়েছে মৌমাছি, বোলতা, ভিমরুল, ডাঁশমশা, মাছি, মশা, ছারপোকা, মাকড়সা ইত্যাদি। প্রাথমিকভাবে করণীয় • হুল ও লেগে থাকা বিষগুলো খুব ধীরে অপসারণ করতে হবে। আপনার আঙুলের নখ কিংবা ছুরি দিয়ে হুল চেঁছে ফেলবেন। • বিষের হুলে চাপ দেবেন না। কারণ, চাপ লাগলে বিষ রক্তে ছড়িয়ে ...

Read More »

ডায়াবেটিস রোগীদের জন্য উপকারী আখের রস

নিউজ ডেস্কঃ শীত কিংবা গ্রীষ্ম যে কোন ঋতুতেই আখ পাওয়া যায়। তাৎক্ষণিক শক্তির সঞ্চয় ও তৃষ্ণা নিবারণের খুব ভালো উৎস হলো আখের রস। এতে খনিজ, সামান্য পরিমাণে প্রোটিন, ক্যালসিয়াম, ফসফরাস, আয়রন, ভিটামিন প্রভৃতি নানা উপাদান রয়েছে, যা শরীরের জন্য অনেক উপকারী। এক গ্লাস আখের রস খেলেই ক্লান্তি দূর হয়ে যায়। এ কারণে আখের রসকে প্রাকৃতিক এনার্জি ড্রিঙ্কও বলা হয়। শুধু ক্লান্তি দূর করতে নয়, বরং ত্বক জন্যও এটি সমান কার্যকরী। খেতে মিষ্টি হলেও আখের রস ডায়াবেটিস রোগীদের জন্য অনেক উপকারী। আবার ওজন কমাতেও ভূমিকা রাখে এটি। আখের রসের আরও নানা গুণ রয়েছে। এগুলো নিম্নরুপ- এনার্জির ঘাটতি দূর করে আখের রসে ...

Read More »

খাদ্যাভ্যাস গড়ে তুলুন আটা-ময়দায়

স্বাস্থ্য ডেস্ক : চালের বাজার চড়া। পঞ্চাশ টাকার নীচে কোন ধরণেরই চাল নেই। শুধু চালের ওপর নির্ভরশীল না হয়ে আটা বা ময়দা দিয়ে তৈরি সুস্বাদু খাবারের প্রতিও অভ্যাস গড়ে তুলতে পারেন। চালের প্রায় অর্ধেক দামেই আপনি আটা-ময়দা কিনতে পারছেন। তাই এখনি জেনে নিন আটা-ময়দা দিয়ে তৈরি কিছু সুস্বাদু খাবারের প্রণালি। আটার রুটি: উপকরণ: আটা, পরিমাণ মত (কাপ হিসাবে নিতে পারেন)। লবণ, পরিমাণ মত (এক কাপে এক চা চামচের চার ভাগের একভাগের মত লাগে, তবে কমেই শুরু করে পরে কাই হয়ে গেলে মুখে দিয়ে লবণ ঠিক করে নিতে পারেন)। পানি, পরিমাণ মত (কুসুম গরম)। প্রণালী: আটা নিন। লবণ দিয়ে দিন। কুসুম ...

Read More »

এলকোহল থেকে লিভার ডিজিজ

স্বাস্থ্য ডেস্ক : জন্ডিস আমাদের দেশে খুব পরিচিত। লিভারের বহুল পরিচিত অসুখটির নাম জন্ডিস। চোখ ও প্র¯্রারের রংসহ সারাদেহ হলুদ হয়ে যাওয়া হলো জন্ডিসের উপসর্গ। আমাদের পেটের ডান পাশের ওপেরর দিকে থাকে লিভার বা যকৃত। যকৃত মানবদেহের অতি গুরুত্বপূর্ণ অঙ্গ। এটি শরীরের বিভিন্ন বিপাকীয় কাজ নিয়ন্ত্রণ করে। প্রোটিন, শকরা এবং চর্বি জাতীয় পদার্থের বিপাক নিয়ন্ত্রণ এবং সেগুলি হতে শক্তি উৎপাদন লিভারের কাজ। লিভার থেকে বিভিন্ন হরমোন এবং এনজাইম তৈরী হয়। এ ছাড়া লিভার থেকে প্লাজমা প্রোটিন এবং রক্ত জমাট বাঁধার বিভিন্ন উপাদান তৈরী হয়। আবার যকৃত থেকেই নিঃসৃত হয় বাইল বা পিওরস বা চর্বি জাতীয় খাবার বিপাক সহায়তা করে। লিভার ...

Read More »

নতুন এন্টিবডি এইচআইভি সংক্রমণ ঠেকাতে

স্বাস্থ্য ডেস্ক : এইচআইভি ভাইরাস সংক্রমণ ঠেকিয়ে পাল্টা আক্রমণ করতে পারে এমন এক এন্টিবডি আবিষ্কারের দাবি করছেন বিজ্ঞানীরা; প্রাথমিক অবস্থায় এটি ভাইরাসের ছড়িয়ে পড়া রোধ করতে পারবে বলেও আশা তাদের। যুক্তরাষ্ট্রের ন্যাশনাল ইনস্টিটিউটস অব হেলথ এবং ওষুধ কোম্পানি সানোফির যৌথ প্রচেষ্টায় এ এন্টিবডিটি তৈরি হয়েছে বলে জানিয়েছে বিবিসি। প্রাণঘাতী এইডস রোগের ভাইরাস এইচআইভি’র ৯৯ শতাংশই এ এন্টিবডিতে আক্রান্ত হবে বলে আশা করা হচ্ছে। বিজ্ঞানীরা বলছেন, এই এন্টিবডি এইচআইভি’র তিনটি গুরুত্বপূর্ণ অংশে এমনভাবে আক্রমণ করবে যেন ভাইরাসটি কোনওভাবেই তা প্রতিরোধ করতে না পারে। আন্তর্জাতিক এইডস সোসাইটি এ আবিষ্কারকে ‘চমকপ্রদ অগ্রগতি’ বলে বর্ণনা করেছে। ২০১৮ সাল থেকে মানুষের শরীরে নতুন এন্টিবডির কার্যকারিতা ...

Read More »

শরীর ফিট রাখতে পুরুষের যে খাবারগুলো খাওয়া দরকার

স্বাস্থ্য ডেস্কঃ আপনি-আমি সবাই জানি, দেহঘড়ির চলার পথ আটকানো কঠিন। তারপরও বয়স লুকাতে আর তারুণ্য ধরে রাখতে চেষ্টার কোনো কমতি করেন না অনেকে। তারুণ্য ধরে রাখতে আপনার হাতের কাছেই রয়েছে কিছু খাবার। কিছু খাবার আছে যা খেলে ভালো থাকবে আপনার শরীর। ঠেকিয়ে রাখবে বয়সের ছাপ। আসুন জেনে নেই এমন কয়েকটি খাবার সম্পর্কে- গ্রিন টিঃ তারুণ্য ধরে রাখতে গ্রিন টি বা সবুজ চায়ের কদর দিন দিন বাড়ছে।সবুজ চায়ে রয়েছে একাধিক পুষ্টি উপাদান ও খনিজ পদার্থ। যেমন অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট, যা ভাঁজহীন ত্বক ও অভ্যন্তরীণ অবস্থা ভালো রাখতে সাহায্য করে। মাছের তেলঃ প্রতিদিন খাদ্য তালিকায় মাছ রাখা জরুরি। মাছের তেল আছে ওমেগা-৩ ফ্যাটি এসিড, ...

Read More »

সর্দি কী? বছরে কয়বার হয়?

স্বাস্থ্য ডেস্কঃ: মানুষ যেসব রোগে সবচেয়ে বেশি আক্রান্ত হয় তার মধ্যে সবার আগে সর্দির ভাইরাস। বয়স্ক মানুষ বছরে দুই থেকে তিনবার আর শিশু বছরে ৬ থেকে ১২ বার সর্দি ভাইরাসে আক্রান্ত হয়। শীতকালে সর্দির প্রকোপ বেড়ে যায়। সর্দির লক্ষ্মণ কী? গলাব্যথা, নাক বন্ধ থাকা, নাক দিয়ে পানি পড়া, জ্বর। ক্ষেত্র বিশেষে মাথা ব্যথা, মাংসপেশীতে ব্যথা, রুচি কমে যাওয়া ইত্যাদি। স্থায়িত্বকাল সাত থেকে দশ দিন। ক্ষেত্র বিশেষে সবোর্চ্চ তিন সপ্তাহের মতো থাকতে পারে। কেন হয় সর্দি? যেভাবে সংক্রমণ: সর্দির ভাইরাস কণিকাগুলো দূষিত আঙ্গুল বা দূষিত বাতাস থেকে আমাদের নাকের ভিতর জমা হয়। অতি অল্প সংখ্যক ভাইরাস কণিকা (১-৩০) সংক্রমণের জন্য যথেষ্ঠ। ...

Read More »

ধূমপানের কারণে চিরতরে হারিয়ে যেতে পারে দৃষ্টিশক্তি!

নিউজ ডেস্কঃ সুখটানের আকর্ষণ এড়াতে পারেন না অনেকেই। তবে এবার বোধহয় সাবধান হয়ে যাওয়াই ভাল। চিকিৎসকরা জানিয়েছে, ক্যানসারই নয়, দীর্ঘদিন ধরে বিড়ি, সিগারেট খেলে চিরতরে দৃষ্টিশক্তি হারাতে হতে পারে। বেশিরভাগ ক্ষেত্রে চিকিৎসা করেও দৃষ্টিশক্তি আর ফেরানো যায় না। সাধারণভাবে স্কুল বা কলেজে পড়ানোর সময়ে নেহাতই কৌতুহলবশে কিংবা বন্ধুদের পাল্লার পড়ে ধূমপান করা শুরু করেন বেশিরভাগ যুবক-যুবতী। পরবর্তীকালে নেশার কবলে পড়ে যান তাঁরা। চেষ্টা করেও ধূমপানের নেশা আর ছাড়তে পারেন না অনেকেই। কিন্তু, নেশা যতই থাকুক না কেন, শরীরের কথা চিন্তা করে ধূমপান যে বর্জন করা উচিত, সেকথা ফের একবার স্মরণ করিয়ে দিলেন ভারতের দিল্লির এইমস হাসপাতালের চিকিৎসকরা। চিকিৎসকরা বলছেন, গবেষণায় ...

Read More »
Translate »